ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ | ইউটিউব এসইও করার নিয়ম

ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হলে আপনাকে কিছু ট্রিক খাটিয়ে কিওয়ার্ড রিসার্চ টুলস্ গুলোর সঠিক ব্যবহার করতে হবে। বর্তমানে ইউটিউবে আগ্রহ নিয়ে অনেকেই কাজ শুরু করছে এবং ভবিষৎতেও করবে। তবে ইউটিউবে কাজ করতে গিয়ে অনেকেই ব্যর্থ হয়। কারণ তাদের আগে থেকে ভিডিও, ভিডিও টাইমিং, সঠিক টপিক নিবার্চন, টাইটেল ট্যাগ, ডিসক্রিপশন সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা থাকে না। ফলে বেশির ভাগ ইউটিবারের ভিডিও ইউটিবে র‌্যাংক করে না আর্নিং হয় না তাদের ইউটিউব ক্যারিয়ার কুইট করে। তাই আজ ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ এবং ইউটিউব এসইও করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানবো। যারা ইউটিউব এসইও করতে চান তারা অবশ্যই ধর্য ধরে এই আর্টিকেলটি পড়ুন। ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ কি এবং ইউটিউব এসইও করার নিয়ম বিস্তারিত জানুন।

কিওয়ার্ড রিসার্চ কি :

কিওয়ার্ড রিসার্চ হলো যে কথা গুলো লিখে ইউটিউবে সাধারণত মানুষ সার্চ করে সেগুলো খুঁজে বের করা। যেন সেই সার্চের উপর আপনি ভিডিও তৈরী করে ইউটিউব সার্চ রেজাল্টের প্রথমে আসতে পারেন এবং ভিডিও ভিউ বাড়িয়ে আর্নিং করতে পারেন। এসইও জেনে ভিডিও তৈরী করলে বা আগের তৈরী ভিডিওতে এসইও করলে অল্প ভিডিও তৈরী করেও আর্নিং করা যায়।

ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ :

ইউটিউবের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ এবং ইউটিউব এসইও দুইটা আলাদা বিষয় কিন্তু একে আপরের সাথে পরিপূর্ণ ভাবে জড়িত। ইউটিউব এসইও এর জন্য আপনাকে আগে অবশ্যই কিওয়ার্ড রিসার্স করতে হবে এবং সেই কিওয়ার্ডের উপর সঠিক নিয়মে ভিডি তৈরী করতে হবে। তখন আপনার ভিডিও ইউটিউবে ব্যাংক করবে আর্নিং শুরু হবে। তাহলে চলুন কিভাবে ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয় তা জেনে ফেলি।

ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ করার নিয়ম :

ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য আপনি অনলাইনে বিভিন্ন টুলস্ পাবেন। যেগুলোর মাধ্যমে খুব সহজে কিওয়ার্ড রিসার্স করে নিতে পারবেন। এর মধ্যে আমি কয়েকটা ওয়েবসাইট এবং টুলস্ এর নাম আপনাদের বলবো যেগুলো ব্যবহার করে ইউটিউব ভিডিও জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারেন। যে টুলস্ গুলো সম্পূর্ণ ফ্রি এবং সেই কিওয়ার্ডের উপর ভিডিও তৈরী করতে পারেন।

Ubarsuggest :

উবার সাজেস্ট হলো একটি কিওয়ার্ড রিসার্স টুল এটি ব্যবহার করে ইউটিউব, শপিং, ব্লগ বিভিন্ন কিওয়ার্ড ফ্রিতে রিসার্চ করতে পারবেন। কিওয়ার্ড রিসার্চের জন্য এটি একটি ফ্রি টুলস্, নিচে টুলস্ এর পেইজের স্কিন শর্ট দেওয়া হয়েছে।

Ubarsuggest Tools Interface

Ubarsuggest Tools Interface

Soovle .com

সুভেল ডটকম হলো উইকিপিডিয়া, ইয়াহু, গুগল, অ্যামাজন, বিং, ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্চ করার জন্য একটি আদর্শ ফ্রি টুলস্। এটি ব্যবহার করে আপনি অনায়াসে যে কোন কিওয়ার্ড রিসার্চ করে নিতে পারবেন। আপনি যদি উবার সাজেস্ট এবং সুভেল ডটকম ব্যবহার করার আগে গুগল ক্রোমে Keyword Every Where এক্সটেনশন ব্যবহার করেন তাহলে কিওয়ার্ড সার্চ ভলিউম সহ কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন।

 Soovle Tools Interface

Soovle Tools Interface

Keyword Every Where

কিওয়ার্ড এভ্রিহোয়ার এক্সটেনশন হলো গুগল ক্রোমের একটি ফ্রি কিওয়ার্ড রিসার্চ টুলস্। আপনি যদি আপনার ক্রোম বাউজারে Keyword Every Where একবার সেট করে নেন তাহলে আপনি যেকোন কিওয়ার্ড লিখে সার্চ দিলে সেই সার্চে যত কিওয়ার্ড আছে সব ডানে লিস্ট আকারে চলে আসবে সাথে সার্চ ভলিউম সহকারে। ফ্রি টুলস্ হিসাবে এটি চমৎকার একটি টুলস্। এটি ব্যবহার করেও ইউটিউবের জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে পারবেন। মানে রাখবে উপরের দুটি টুলস্ ব্যবহাররে আগে Keyword Every Where এক্সটেনশন টি আপনার ক্রোম ব্রাউজারে সেট করে নিবেন।

Keyword Every Where Extension

Keyword Every Where Extension

LSIGraph .com

এলএসআই গ্রাফ টুলস্ টি হলো কিওয়ার্ড রিসার্চ এবং কিওয়ার্ড রিলেটেড ট্যাগ বের করার জন্য বেস্ট একটা টুলস্। আপনি যে কিওয়ার্ড খুঁজে পাবেন তা দিয়ে LSIGraph .com সার্চ দিবেন। তারপর যেগুলো আসবে সেগুলো আপনার কিওয়ার্ড ট্যাগ হিসাবে ব্যবহার করবেন।

LSIGraph Tools Interface

LSIGraph Tools Interface

উপরের টুলস্ গুলো ব্যবহার করে খুব সহজেই আপনার ইউটিউব ভিডিও এসইও করতে পারেন। প্রতিটা টুলস এর স্কিন শর্ট নাম সহকারে ব্যবহার উল্লেখ করা হয়েছে। প্রয়োজন হলে স্কিন শর্ট ভালোভাবে দেখে কাজ করুন।

ইউটিউব এসইও কি :

ইউটিউব এসইও হলো আপনার ভিডিও কে ইউটিউব এর সার্চ রেজাল্ট এর প্রথমে নিয়ে আসা। কেউ আপনার ভিডিও নিস নিয়ে ইউটিউবে সার্চ করলে যেন তা পেয়ে যায়। তবে এজন্য আপনাকে ইউটিউব এসইও সম্পর্কে জানতে হবে। কিভাবে ইউটিউব এসইও করতে হয় তা ধারাবাহিক ভাবে বর্ণনা করা হলো। নিচের একটি YouTube SEO Structure দেওয়া হয়েছে। আপনি সেই অনুযায়ী ভিডিও তৈরী করলে আপনার ভিডিও গুগলে র‌্যাংক করবেই ।

youtube seo formula list

ইউটিউব এসইও করার নিয়ম :

YouTube SEO Structure টি বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য আমি নিচে সব পয়েন্ট গুলো বাংলায় তুলে ধরেছি যাতে আপনাদের বুঝতে সুবিধা হয়। তাহলে চলুন ইউটিউব এসইও করার নিয়ম পয়েন্ট গুলো বিস্তারিত জেনেনি।

লম্বা ভিডিও তৈরী করা :

আপনি যে বিষয়ে ভিডিও তৈরী করবেন, যে কিওয়ার্ড ব্যবহার করবেন, সে কিওয়ার্ড টি আগে ইউটিউবে একবার সার্চ করে দেখুন। আপনার সার্চে যে ভিডিও গুলো আসবে তার গড় অ্যাভারেজ টাইম দেখুন। তারপর তার থেকে একটু বড় এবং ভালো মানের ভিডিও তৈরী করুন। তাহলে আপনার ভিডিও ইউটিউবে র‌্যাংক করবে। মনে রাখবেন ইউটিউবে সব সময় বড় ভিডিও র‌্যাংক করে। ইউটিউবের অ্যালগরিদমরে কারণে কিছু ক্ষেত্রে আলাদা হয়।

Long Video Rank Factor

Long Video Rank Factor

কিওয়ার্ড রিলেটেড টাইটেল :

আপনার ভিডিওর টাইটেল সব সময় প্রথমে কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন তারপর অতিরিক্ত ভাবে রিলেটড শব্দ ব্যবহার করে পারেন। যেমন- Update, Fully Update, Year CTR increase Word ব্যবহার করতে পারেন।

ডিসক্রিপশন লিখার নিয়ম :

ইউটিউবে ভিডিও পাবলিশ করার আগে একটি 300-500 ওয়ার্ডের ভিডিও রিলেটেড কথা সুন্দর করে লিখুন তার ভিতরে আপনার কিওয়ার্ড ভালোভাবে উল্লেখ করুন। এলএসআই গ্রাফ ট্যাগ ব্যবহার করার টেষ্ট করুন। যদি ডিসক্রিপশন না লিখতে পারেন তাহলে ছোট লিখুন সমস্যা নাই, কিন্তু আজে বাজে কিছু লিখবেন না।

টপিক রিলেটেড ট্যাগে ব্যবহার :

আপনার ভিডিওর কিওয়ার্ড রিলেডেট ট্যাগ ব্যবহার করুন। এমন ট্যাগ ব্যবহার করবেন না যা আপনার ভিডিওতে নেই। এজন্য আপনি ক্রোমের Vidlq Extension ব্যবহার করতে পারেন।

আর্কষণীয় থাম্বেনেইল ব্যবহার :

আপনার ভিডিওতে আর্কষণীয় থাম্বেনেইল ব্যবহার করুন যাতে ইউজার তা দেখে ক্লিক করতে চাই। তবে এমন থাম্বেনেইল ব্যবহার করবেন না যা আপনার ভিডিওতে নেই। ক্লিক দিয়ে যদি আপনার ইউজার ভিডিও থেকে ব্যাক করে তাহলে আপনার ভিডিও ফল্ট ডাউন করবে।

ভিডিও প্রথমে 15 সে আকৃষ্ট করণ :

আপনার ভিডিওতে প্রথমের দিকে আকৃষ্ট মূলক কিছু যোগ করুন। যেমন ভিডিওর মধ্যে থেকে মূল বিষয়টা 15 সেকেন্ট কেটে প্রথমে যোগ করতে পারেন। তাহলে ব্যবহার কারী ভিডিওটি দেখার আগ্রহ জগবে। মনে রাখবেন প্রথমে দেখলে বাকি ভিডিও দেখার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

ইউজার রিএ্যাকশন সংকেত :

ব্যবহার কারী আপনার ভিডিও দেখার পড়ে যদি কোন রিএ্যাকশন না করে, তাহলে আপনার ভিডিও ইউটিউবে র‌্যাংক করবে না। এজন্য ভিডিওর মধ্যে ইউজার কে লাইক কমেন্ট শেয়ার করতে বলবেন। যদি কেউ লাইক ডিসলাইক কমেন্ট না করে তাহলে ইউটেউবে ভিডিও র‌্যাংক করবে না।

ভিডিও ব্যাকলিংক তৈরী করা :

প্রয়োজনে আপনি আপনার ভিডিওর জন্য কিছু ব্যাকলিংক তৈরী করুন তাহলে ইউটিউব মনে করবে আপনার ভিডিও ভালো এজন্য বিভিন্ন সাইটে ব্লগে সোস্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হচ্ছে। ফলে আপনার ভিডিও র‌্যাংক করবে।

ইউটিউব কিওয়ার্ড রিসার্স এবং এসইও বিষয়ে যদি আপনাদের কোন বিষয় বিস্তারিত জানার প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে কমেন্ট করুন। পরবর্তীতে আমি নতুন আর্টিকেল নিয়ে আসবো আপনাদের জন্য। অনেক কষ্ট করে লিখলাম, যদি আপনাদের লিখাটি কাজে আসে তাহলে সার্থক মনে করব, বানানের ভূল হলে মার্জনার চেখে দেখুন। আর লিখাটি ভালো লাগলে লাইক কমেন্ট শেয়ার করুন।

2 Comments

  1. Mizanur Rahman August 24, 2019

Leave a Reply

error: Content is protected !!