ট্রান্সফরমার কাকে বলে। ট্রান্সফরমার কত প্রকার ও কি কি

ট্রান্সফরমার কি বলতে গেলে এমন একটা ডিভাইস যে ডিভাইসের সাহায্যে ২২০ ভোল্ট এসিকে নির্দিষ্ট একটা প্রকৃয়ার মাধ্যমে চাহিদা মত ভেল্টে কনভার্ট করা যায়। মোট কথা হাই ভোল্ট এসি ব্যবহার যোগ্য করার জন্য ট্রান্সফরমার ব্যবহার করা হয়। ২২০ ভোল্ট এসি কে সরাসরি কোন সার্কিটে দেওয়া সম্ভব নয় এজন্য ২২০ ভোল্টকে এসিকে ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে কমিয়ে বিভিন্ন ইলেক্ট্রিক্যাল বা ইলেক্ট্রনিক্স সার্কিটে ব্যবহার করা হয়।

এসি কারেন্ট ব্যবহার উপযোগী করার জন্য ট্রান্সফরমার বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তবে বিভিন্ন স্থান ভেদে ট্রান্সফরমার বিভিন্ন ক্যাটাগরি ব্যবহার করা হয়। আশা করছি আজ আমরা ট্রান্সফরমার সম্পর্কে একটা বেসিক ধারণা পাবো নিম্নে ট্রান্সফরমার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

ট্রান্সফরমার কাকে বলে:

ট্রান্সফরমার হলো একটি সাধারণ স্থির প্রকৃতির ডিভাইস। ম্যাগনেটিক কোরের দুই সাইডে আলাদা ভাবে দুইটি কয়েল রেখে বিদ্যুৎ সংযোগ দিলে ম্যাগনেটিক ফিকিউন্সির মাধ্যমে বিদ্যুৎ এক কয়েল থেকে অন্য কয়েলে স্থানন্তরীত হয়। আর এই স্থানন্তরীত হওয়া কে পরিবর্তনকারী ডিভাইস বা ট্রান্সফরমার বলা যায়। এটা কয়েলের উপর ডিপেন্ড করে কত ভোল্ট কারেন্ট আউট-পুট হবে। যার ইলেক্ট্রিক্যাল নিয়ে পড়াশোনা করেন তারা হয়তো ভালো করেই জানেন সাধারণত ট্রান্সফরমার  কয়েল, আকার-আকৃতি, কোর ঠান্ডাকরণ ট্রান্সফরমার বিভিন্ন প্রকারের হয়ে থাকে তবে কার্যপ্রনালীর উপর ভিত্তি করে ট্রান্সফরমার দুইপ্রকার নিম্নে তা আলোচনা করা হলো।

ট্রান্সফরমার সাধারণত দুই প্রকার যথা-  

১ স্টেপ-আপ ট্রান্সফরমার (Step-Up transformer):

যে ট্রান্সফরমারের ইনপুটে কম ভোল্টেজ দিলে আউটপুটে বেশি ভোল্টেজ পাওয়া যায় তাকে স্টেপ-আপ ট্রান্সফরমার (Step-Up transformer) বলে। অর্থাৎ যে ট্রান্সফরমার এর প্রাইমারী কয়েলে অল্প ভোল্ট দিলে ম্যাগনেটিক কোরের মাধ্যমে সেকেন্ডারীতে বেশি ভোল্ট পাওয়া যায় তাকে স্টেপ-আপ ট্রান্সফরমার (Step-Up transformer) বলে।

চিত্র: স্টেপ-আপ ট্রান্সফরমার (Step-Up transformer)

Step-Up transformer diagram jpg

২। স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer):

যে ট্রান্সফরমারের ইনপুটে বেশি ভোল্টেজ দিলে আউটপুটে কম ভোল্টেজ পাওয়া যায় তাকে স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) বলে। অর্থাৎ ট্রান্সফরমারের প্রাইমারী কয়েলে বেশি ভোল্ট কারেন্ট দিলে ম্যাগনেটিক কোরের মাধ্যমে সেকেন্ডারীতে অল্প ভোল্টের কারেন্ট পাওয়া যায় তাকে স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) বলে। স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন ধরণের ইলেক্ট্রনিক্স গ্যাজেট, রেডিও, টিভি ইত্যাদি এসি কারেন্টে চালিত সকল যন্ত্রে। Fuse deteils

চিত্র: স্টেপ-আপ ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer)

Step-Down Transformer diagram jpg

ট্রান্সফরমার ব্যবহার: আমরা বিভিন্ন প্রজেক্ট কে এসি কারেন্টে চালানের জন্য স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) ব্যবহার করে থাকি।স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) বিভিন্ন ভোল্টের হয়ে থাকে। যেমন- ৬-০-৬, ১২-০-১২, ২৪-০-২৪ ভোল্ট ১, ২, ৩, ৪, ৫ ইত্যাদি অ্যম্পিয়ারের হয়। আপনি যখন কোন প্রজেক্ট করবেন তখন ট্রান্সফরমার কেনার আগে অবশ্যই ভোল্ট এবং অ্যাম্পিয়ার জেনে কিনতে হবে।

অল্পভোল্টে চালিত বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্রে আমরা স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) ব্যবহার করে থাকি। স্টেপ-ডাউন ট্রান্সফরমার (Step-Down Transformer) আপনাদের হবি প্রজেক্ট যদি এসি কারেন্ট চালাতে চান তাহলে ব্যবহার করতে পারেন তবে আউট-পুটে ডায়োড ব্যবহার করে ডিসি ভোল্ট করে নিতে হবে কারণ ট্রান্সফরমারে ইনপুটে এসি ভোল্ট দিলে আউপুট এসি ভোল্ট পাওয়া যায়।

ট্রান্সফরমারের গঠন ডায়াগ্রাম

চিত্র: ট্রান্সফরমারের গঠন ডায়াগ্রাম

all transformer diagram jpg

ট্রান্সফরমারের ইন-পুট আউট-পুট ভোল্ট:

ট্রান্সফরমারের ইনপুট আউটপুট ভোল্ট বিভিন্ন হয়ে থাকে যেমন- 6-0-6 1A অর্থাৎ ট্রান্সফরমারের ইনপুটে প্রাইমারী কয়েলে যদি 220 ভোল্ট এসি দেওয়া হয় তাহলে আউটপুট তিনটা সংযোগের দুই পাশের লাল সংযোগে 6 ভোল্ট করে আউট হবে এবং মিডিলের টা গ্রাউন্ড হিসাবে থাকবে। এভাবে ট্রান্সফরমারের ইনপুট আউটপুট ভোল্ট হয়। তাবে আপনি ট্রান্সফরমার বাজার থেকে কেনার আগে জেনে নিবেন কি ট্রান্সফরমার এবং কত অ্যাম্পিয়ারের  আপনার প্রয়োজন।

ট্রান্সফরমার নিয়ে যদি আপনাদের কিছু জানার থাকে তাহলে আমাকে কমেন্ট করতে পারেন। আমি উওর দেওয়ার চেষ্টা করবো।

5 Comments

  1. Avatar scr888 kiss download March 31, 2019
  2. Avatar live blackjack game April 1, 2019
  3. Avatar live poker events uk April 5, 2019
  4. Avatar gamefly free trial May 23, 2019

Leave a Reply

error: Content is protected !!