রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন

রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন কি কাকে বলে

আজ আমরা জানবো রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন কি কাকে বলে কিভাবে কাজ করে। কারণ আমাদের নিত্যদিনের ব্যবহৃত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রের সব সার্কিটকে এই রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন কে কাজে লাগিয়ে তৈরী করা হয়। যেগুলোর মধ্যে বেশির ভাগ যন্ত্র এসি কারেন্টে চলে, কিন্তু এগুলো এসিতে চালানোর জন্য রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন করা হয়। তাহলে চলুন রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জেনেনি।

রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন কি :

আমরা প্রতিনিয়ত 220 ভোল্ট এসি কারেন্ট ব্যবহার করে ঘরের টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, লাইট, কম্পিউটার চালানো সহ বৈদ্যুতিক সকল কাজ কর্ম করে থাকি। কিন্তু আপনারা হয়ত অনেকেই জানেন ইলেকট্রনিক্স এর সকল যন্ত্রপাতি চালাতে গেলে ডিসি কারেন্ট ভোল্টেজের প্রয়োজন হয়। কারণ এসি কারেন্ট ভোল্টেজ বেশির ভাগ যন্ত্রতে কাজ করে না। এজন্য রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন পদ্ধতি অবলম্বন করার প্রয়োজন হয়।

রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন
রেকটিফিকেশন পদ্ধতি

চিত্র: রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন পদ্ধতি

রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন কাকে বলে :

যে ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের মাধ্যমে এসি কারেন্ট কে ডিসি কারেন্ট এ রুপান্তরিত করা হয় তাকে রেকটিফায়ার বলে। আর যে পদ্ধতিতে এসি কারেন্টকে ডিসি কারেন্টে রুপান্তরিত করা হয় সেই পদ্ধতিকে রেকটিফিকেশন বলে। আর রেকটিফিকেশন ডায়োডের মাধ্যমে করা হয়ে থাকে এজন্য ডায়োড কে রেকটিফায়ার বলা হয়।

ডয়োড সম্পর্কে জানুন

রেকটিফায়ার ও রেকটিফিকেশন এর কাজ :

এসি কারেন্ট কে প্রয়োজন মতো বাড়ানো কমানোর জন্য ট্রান্সফমরা ব্যবহার করা হয় এবং এবং ডয়োড দিয়ে রেকটিফিকেশন করা হয়। ডায়োড দিয়ে রেকটিফিকেশন করা হলে বলে ডায়োডকে রেকটিফায়ার বলে। রেকটিফায়ার সাধারণত দুই প্রকার যথা-

  • হাফওয়েভ রেকটিফায়ার। (Half wave Rectifier)
  • ফুলওয়েভ রেকটিফায়ার। (Full wave Rectifier)

ট্রান্সফমার সম্পর্কে জানুন

পরবর্তীতে হাফওয়েভ এবং ফুলওয়েভ রেকটিফায়ার নিয়ে বিস্তারিত ভাবে দুইটা আর্টিকেল পাবলিশ করা হবে যদি আপনারা চান তাহলে নিচে কমেন্ট এবং লাইক করুন আর নতুন নতুন তথ্য পাওয়ার জন্য গ্রুপে জয়েন হয়ে আমাদের সাথেই যুক্ত থাকুন।

2 Comments

  1. Airandhydraulic February 12, 2022
    • admin February 14, 2022

Leave a Reply

6 × = 54

DMCA.com Protection Status
error: Content is protected !!