স্মার্ট এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন গরম

স্মার্ট এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ ও সমাধান

আজ আমরা জানবো স্মার্ট এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ কি এবং কিভাবে মোবাইল গরম হওয়া থেকে বাঁচানো যায় তার উপায় সমূহ। স্মার্ট এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন গরম হওয়া স্বাভাবিক কি- না অস্বাভাবিক বিষয় বিস্তারিত। স্মার্টফোন গরম হওয়ার কথা বলতে গেলে একটা কথা বলতে হয় সেটা হলো প্রতিটি ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসই কোনো না কোনো কারণে গরম হয়ে থাকে যেটা ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসের ধর্ম বলতে পারেন আর মোবাইলও তার ব্যতিক্রম ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস নয়।

যেমন- বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স যন্ত্র কুলিং বা ঠান্ডা করার জন্য অনেক কিছু ব্যবহার করা হয় তার মধ্যে কম্পিউটারে কুলিং ফ্যান, গাড়িতে কুলিং পানির ফিল্টারে ফ্যান, বিভিন্ন সার্কিটে হিটসিং ব্যবহার অন্যতম। কিন্তু মোবাইল ফোন এর মধ্যে কেন ফ্যান ব্যবহার করা হয় না। তবে আইসি বা চিপের উপর সিলভর এর হিটসিং ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আজ জানবো কি কি কারণে মোবাইল বেশি গরম হতে থাকে, গরম হওয়া ক্ষতিকর কি-না এবং কিভাবে মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে কম গরম হবে।

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ কি :

স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হওয়ার ব্যাপার নিয়ে অনেকের অনেক মতামত রয়েছে। কেউ বলে- বেশি কথা বললে স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হয়, কেউ বলে বেশি গেম খেললে স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হয়, কেউ বলে বেশি ইন্টারনেট চালালে স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হয়। কিন্তু একটা কথা মাথায় রাখা উচিৎ! কথা বলার জন্য, গেম খেলার জন্য, ইন্টারনেট চালানোর জন্য, ভিডিও করা বা দেখার জন্যেই তো স্মার্টফোন। তাই বলে আপনি মনে করবেন না যে স্মার্টফোন গরম হবে না। স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হওয়ার অনেক কারণ থাকতে পারে তার মধ্যে বিশেষ কিছু কারণ নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। যে কারণ গুলো সনাক্ত করে আপনার মোবাইলে সমস্যা আছে কি-না বা স্বাভাবিক গরম হচ্ছে কি-না সেটা বুঝতে পারবেন। তাহলে চলুন স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ গুলো জেনেনি।

মোবাইল সিস্টেমে বেশি লোড দেওয়া:

স্মার্ট মোবাইল ফোন বা যেকোন ফোনে যদি বেশি লোড দেওয়া হয় তাহলে স্বাধারণত গরম হবেই। যেমন- আপনি ইন্টারনেট চালু অবস্থায় যদি ভিডিও দেখেন, স্ট্রিমিং করে গান শোনেন বেশি কথা বলেন, এক সাথে কয়েকটা এপস্ চালু রাখেন তাহলে তো মোবাইল গরম হবেই। এটা স্বাভাবিক গরম যা বেশির ভাগ মোবাইলে হয়ে থাকে সুতরাং এমন অবস্থায় যদি আপানার মোবাইল বেশি গরম হয়, তাহলে সব কিছু এক সাথে চালানো থেকে বিরত থাকতে হবে। আপনি যখন কোন মোবাইলে অত্যাধিক লোড দিবেন তখন মোবাইলে বেশি চার্জ ফুরাবে এবং গরম হতে থাকবে।

ফ্রি মোডে ইন্টারনেট চালু রাখলে:

স্মার্ট মোবাইল ফোনে আমরা কি করি সব সময় নেট চালু রাখি ফলে মোবাইল গরম হয় বিশেষ করে যখন ইন্টানেট সিগন্যাল অনেক লো কোয়ালিটি থাকে তখন মোবাইল প্রচুর গরম হয়। আবার মোবাইলে এমবি না থাকা অবস্থায় ইন্টারনেট চালু রাখলে মোবাইল গরম হয়। নেট না থাকলে আমরা মোবাইলে ফ্রি ফেইসবুক চালাই বা ফ্রি নেট চালু করে মেসেঞ্জার অন করে রেখে দেই। এতে মোবাইল বেশি গরম হয় এবং চার্জ দ্রুত কমতে থাকে।

দুর্বল লো সিগনাল নেটওয়ার্ক হলে :

আপনি এমন এক জায়গায় আছেন বা থাকেন, যেখানে নেটওয়ার্ক সিগনাল খুব দুর্বল। অথবা ওয়াইফাই সিগনাল অনেক লোডিং নিয়ে আপনার স্মার্টফোন পর্যন্ত আসছে। এই অবস্থায় আপনার স্মার্টফোনে বেশিক্ষণ চার্জ থাকবে না। লো দুর্বল নেটওয়ার্ক সিগনাল হওয়ার জন্য আপনার ফোনটি অ্যান্টেনাতে পিএ আইসিতে বেশি পাওয়ার প্রয়োগ করে যেন মোবাইলে ভালো সিগনাল পাই। এতে স্মার্টফোনটির প্রসেসরকে অনেক বেশি কাজ করতে হয় এবং স্মার্টফোন অত্যাধিক গরম হতে থাকে।

প্রসেসরে অতিরিক্ত চাপ ওভারলোড পড়লে :

স্মার্ট মোবাইল ফোন গরম হওয়ার অন্যতম কারণ প্রসেসরের উপর অতিরিক্ত চাপ পড়া কম্পিউটার বা ল্যাপটপে বেশি প্রোগ্রাম লোড বা চালু করলে যেমন হার্ডডস্ক ও কুলিং ফ্যান গুলো বেশি জোরে ঘুরে, তেমনী মোবাইলে যখন প্রসেসর এর উপর বেশি অ্যাপের লোড পড়ে তখন মোবাইল এর উপরের দিকে যেখানে প্রোসেসর থাকে সেখানটা অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হতে থাকে। বলতে গেলে স্মার্টফোন বেশি গরম হওয়ার জন্য প্রথম কারণ প্রসেসর বা সিপিইউ ওভার লোড হওয়া।

মোবাইলের প্রসেসরের ভিতরে অনেক ছোট ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ইলেকট্রন থাকে। সাধারণত কথা বলা কিংবা গান শোনার তুলনায় টানা ইন্টারনেট ডাউনলোড করলে ইলেকট্রন গুলোর গতি বেড়ে যায় তখন বেশি তাপ উৎপন্ন করে ফলে ফোন গরম হতে থাকে। প্রসেসর ফোনের বডির সাথে লেগে থাকে যার ফলে গরম অনুভূত হয়। এটা স্বাভাবিক গরম, সব ফোনেই হয়ে থাকে। তবে স্বাভাবিকের চেয়ে যদি বেশি গরম হয় এবং স্মার্ট মোবাইল ফোন রিস্টার্ট নেয় তাহলে বুঝতে হবে ফোনের সিস্টেম সফ্টওয়্যারে কোন সমস্যা হয়েছে সে অবস্থায় সফ্টওয়্যার দিতে হবে অথবা অভার এপস্ গুলো রিমুভ করে দিতে হবে।

তারপরেও যদি অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হয় তাহলে বুঝতে হবে মোবাইলের কোন পার্টস্ শর্ট হয়ে আছে এজন্য গরম হচ্ছে। আর স্মার্ট মোবাইল ফোন বেশি গরম হলে প্রসেসরের ক্ষতি হতে থাকে কর্মক্ষমতা কমে যায়। স্মার্ট মোবাইল ফোনের প্রসেসর এমন ভাবে তৈরি হয়ে থাকে যা বেশি গরম হলে ঠান্ডা হওয়ার জন্য নিজের থেকেই কাজ কমিয়ে দেয়। এমন প্রক্রিয়া বারবার হলে প্রসেসর স্থায়ী ভাবে ক্ষতি হতে থাকে।

অতিরিক্ত গরম আবহাওয়ার কারণে:

স্মার্টফোন অত্যাধিক গরম হওয়ার আরো কিছু কারণ হলো- গরমের সময় যখন অতিরিক্ত তাপমাত্রা বেড়ে যায় তখন মোবাইলে একটুতে গরম হতে থাকে। সাধারণ ভাবে গ্রীষ্মকালে বাংলাদেশের তাপমাত্রা ৩০-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হয়ে যায়। এই পরিবেশে আপনি ঘরে বসে থাকলেও আসে পাশের তাপমাত্রা থাকে প্রায় ৩০-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর এই তাপমাত্রায় স্মার্ট মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে এটি আরো তাড়া-তাড়ি গরম হয়ে থাকে। এটা স্বাভাবিক ব্যাপার হিসাবে ধরা যায় তবে কতটা গরম হওয়া স্বাভাবিক এবং কতটা গরম হওয়া অস্বাভাবিক সেটা জানা উচিৎ। আর স্মার্টফোন অত্যাধিক গরম হওয়াতে কি কি অসুবিধা হতে পারে জানেন?

  • মোবাইল ফোন বার বার রিস্টার্ট হতে পারে।
  • স্মার্ট মোবাইল ফোন হ্যাংক করতে পারে।
  • মোবাইল ফোন একে বারে ডেড হতে পারে।

মোবাইল স্বাভাবিক গরম অস্বাভাবিক গরম :

স্মার্ট মোবাইল ফোন স্বাভাবিক এবং অস্বাভাবিক গরম হওয়া নিয়ে অমরা হয়তো সবাই অনেক কিছু জানি, কারণ প্রতিনিয়মত সবাই মোবাইল ব্যবহার করে থাকি। স্বাভাবিক অবস্থায় কাজ করতে করতে আপনার স্মার্টফোনটি ৩০-৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত গরম হতে পারে। এটা শুধু আপনার ফোন এর ক্ষেত্রে না বেশির ভাগ ফোনের ক্ষেত্রে এমন হয়। তবে কম দামী মোবাইল ফোনের একটু বেশি গরম হয়। কারণ তার সব কনফিগারেশন লো থাকে নেটওয়ার্কিং শক্তি অনেক কম থাকে।

স্যামসাং স্মার্ট মোবাইল ফোন এবং অ্যাপেল স্মার্ট মোবাইল ফোন সব ফোনই গরম হয়। আপনি লক্ষ্য করলে দেখবেন যে আপনার ফোনটি সব সময়ই কর্মরত অবস্থায় ৩০-৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত গরম থাকছে। আইফোন গরম হওয়ার কারণ, স্যামসাং মোবাইল গরম হওয়া সমস্যা থাকে। আর যদি আপনার ফোনটি স্ট্যান্ড-বাই মোডে থাকা অবস্থায় ৩৫-৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা হয় গরম হয় তাহলে আপনার ফোনে সমস্যা আছে।

ব্যাটারি জনিত সমস্যার কারণে :

যদি আপনার স্মার্ট মোবাইল ফোনের ব্যাটারীর অ্যাম্পিয়ার কমে যায় তাহলে মোবাইল অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হবে বা ব্যাটারীর কোন সমস্যা হলে আপনার মোবাইল গরম হবে এজন্য ব্যাটারী পরিক্ষা করা প্রয়োজন। স্মার্টফোন দিন দিন পাতলা হলেও ব্যাটারির প্রযুক্তি সেভাবে উন্নত হয়নি। দুর্বল ব্যাটারি সহজেই গরম হয়ে যায় তাপ তৈরি করে ও ব্যাটারি চার্জ নেওয়ার সময়ে বা ডিসচার্জ করার সময়ে ফোনকে বেশি গরম করে দেয়।

আর আপনি যদি এমন জায়গায় থাকেন যেখানে নেটওয়ার্ক খুব দুর্বল, লো সিগন্যাল পাচ্ছে অথবা, ওয়াইফাই সিগন্যাল পেতে ফোনটিকে খুব লোডিং নিতে নিচ্ছে। তবে সেই পরিস্থিতিতে স্মার্ট ফোনের চার্জ বেশি শেষ হয়। দুর্বল নেটওয়ার্কে সিগন্যাল পাওয়ার জন্য যেকোন ফোন বেশি শক্তি প্রয়োগ করে ফলে প্রসেসরে উপর চাপ পড়ে এবং যেকোন স্মার্টফোন অত্যাধিক গরম হয়।

স্মার্ট মোবাইল গরম হলে করণীয় কি :

যদি দেখে অস্বাভাবিক কোন কারণে আপনার স্মার্টফোন গরম হয়। যেমন- মোবাইলে কিছু করছেন না তারপরেও অটোমেটিক গরম হচ্ছে, তাহলে বুঝতে হবে কোন সমস্যা আছে, যে সমস্যা গুলো থাকতে পারে তার মধ্যে কয়েকটা নিচে দেওয়া হলো। এগুলো সনাক্ত করারপর তার সমাধান করতে হবে তাহলে আর মোবাইল গরম হবেনা।

  • কি কাজ করলে আপনার স্মার্টফোন বেশি গরম হয় সেটা দেখতে হবে।
  • কোন গেম খেলা অবস্থায় মোবাইল ফোন বেশি গরম সেটা দেখতে হবে।
  • বেশি গরম হলে মোবাইল হ্যাংক করছে কি-না সেটা দেখতে হবে।
  • কোন এপস্ ইনস্টল করলে মোবাইল গরম হচ্ছে কি-না দেখতে হবে।
  • মোবাইলের কনফিগারেশনের তুলনায় বেশি মাত্রায় এপস্ ব্যবহার হচ্ছে কি-না।
  • অতিরিক্ত গরম হওয়ার কারণে মোবাইল রিস্টার্ট নিচ্ছে কি-না দেখতে হবে।।
  • মোবাইলের নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট ঠিক মত পাচ্ছে কি-না দেখতে হবে।

উপরে উল্লেখিত সমস্যা গুলো সনাক্ত করারপর সমাধান করতে হবে তাহলে আর গরম হবে না। সমস্যা গুলো কিভাবে সমাধান করবেন সেটা তেমন কোন জটিল বিষয় না। একটু টেকনিক করে মোবাইল গরম হওয়ার কারণ গুলো এড়িয়ে চলতে হবে। ভারি এপস্ গুলো রিমুভ করতে হবে, কনফিগারেশন জেনে এপস্ ব্যবহার করতে হবে। দরকার সেই এপস্ গুলোর লাইট ভার্সন ব্যবহার করতে হবে তাহলে মোবাইল আর গরম হবে না।

মোবাইল গরম হওয়া থেকে বাঁচানোর উপায় :

স্মার্টফোন গরম হওয়া থেকে বাঁচানোর জন্য অটো অ্যানিমেশন বন্ধ রাখতে হবে। প্রয়োজন ছাড়া ওয়াইফাই অফ রাখতে হবে। স্মার্ট মোবাইলের এমন কভার নিতে হবে যেটা ফোনের তাপ শুষে নিতে পারে। আর বাইরের তাপ যেন ফোনকে গরম করে না দেয় সেই দিকে খেয়াল রাখতে হবে এবং মোবাইল ফোন যতটা সম্ভব রোদ থেকে দূরে রাখতে হবে আর নিচে উল্লেখিত বিষয় গুলো খেয়াল করে মোবাইল ব্যবহার করতে হবে। যেমন-

  • এন্ডয়েড ফোনের সফ্টওয়্যার গুলো সব সময় আপডেট রাখতে হবে।
  • মোবাইলে যেকোন ধরণের অটো আপডেট বন্ধ করে রাখতে হবে।
  • অটো মেটিক প্রোগ্রাম এপস্ রানিং বা নোটিফিকেশন বন্ধ রাখতে হবে।
  • কোন অ্যাপস ব্যাক গ্রাউন্ডে বেশি জায়গা নিচ্ছে কি-না দেখতে হবে।
  • ফোনের কনফিগারেশন অনুযায়ী প্রোগ্রাম ব্যবহার করতে হবে।
  • কোন এপস্ কতটুকু স্পেস নিয়ে ফোন দখল করে আছে দেখতে হবে।

মোবাইল ঠান্ডা রাখার সফ্টওয়্যার :

স্মার্টফোন ঠান্ডা রাখার তেমন কেন সফ্টওয়্যার নেই তবে কিছু এপস্ আছে যেগুলো ব্যবহার করলে মোবাইল ভারি হবে না, হ্যাং করবে না, হালকা থাকবে, ফলে মোবাইল গরম কম হবে। তার মধ্যে বিভিন্ন ক্যাশ ক্লিয়ার এপের মধ্যে ভালো একটা এপস্ ব্যবহার করতে হবে এবং এক সাথে অযথা অনেক প্রোগ্রাম অন করা থেকে বিরত থাকতে হবে। মোবাইলে ভাইরাস ইনজেক্ট থেকে রক্ষার জন্য ভালো একটা এন্টি ভাইরাস ব্যবহার করতে হবে। কারণ সিস্টেমে ভাইরাস প্রবেশ করলে সিস্টেমে গড়-মিল শুরু হয় ফলে কোন প্রোগ্রাম ক্রাপ্ট হলে মোবাইল গরম বা হ্যাং হতে থাকে।

মোবাইল কতটা গরম হওয়া স্বাভাবিক :

স্মার্টফোন মোবাইল স্বাভাবিক অবস্থায় কাজ করলে ৩০-৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত গরম হতে পারে। তবে লো কনফিগারেশেনের মোবাইলে আপডেট ভারি এপস্ ব্যবহার করলে বা লো নেটওয়ার্ক জনিত সমস্যার কারণে গরম হতে পারে। আপনার ফোন কম দামি বলে বেশি গরম হবে তা কিন্তু নয়। স্যামসাং, ওপ্রো, শাওমি, হাওয়াইয়ে, অ্যাপেল, সব ফোনই গরম হয়। তবে স্ট্যান্ড বাই মোডেও যদি আপনার ফোনটি ৩০-৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত গরম হয়ে থাকে তবে বুঝবেন সমস্যা রয়েছে যেগুলো বিস্তারিত ভাবে উপরে আলোচনা করা হয়েছে। মোবাইল সার্ভিসিং শিখুন এখানে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

DMCA.com Protection Status