মোবাইলের কিপ্যাড সমস্যার সমাধান সম্পর্কে বিস্তারিত টিপস্

মোবাইলের কিপ্যাড সমস্যার সমাধান সম্পর্কে বলতে গেলে আপনার মোবাইলটি যদি কিপ্যাড মোবাইল হয় আর যদি দেখেন যে আপনার মোবাইলের একটি বাটন অথবা একাধিক বাটন কাজ করছে না। তাহলে আপনি যেটা করতে পারেন নিম্নে তা ধারবাহিক ভাবে বিস্তারিত সমাধান দেওয়া হলো:

মোবাইলের কিপ্যাড সমস্যার:

প্রথম ধাপ:-

কাজ শুরুর পূর্বে যে টুলস্ গুলো আগে নিবেন:

১। একটা স্টার অথবা মাইনাস স্ক্রু।

২। থিনার অথবা পেট্রেল অয়েল।

৩। সাদা কসটেপ (পতলা পলিথিনের মত)।

৪। একটা ছোট নরম ব্রাশ।

২য় ধাপ:-

১। আপনি স্ক্রু দিয়ে আপনার মোবাইলটি সাবধানতার সাথে ধীরে ধীরে খুলবেন। খোলার জন্য স্টার স্ক্রু কিনবেন অথবা সাইকেলের স্পক আর কলম দিয়ে বানিয়ে নিতে পারেন।

২। মোবাইলটি খোলার পর  দেখবে যে ভিতরে অনেক ময়লা জমে আছে তা ধিরে ধিরে একটি নরম ব্রাশ দিয়ে পরিস্কার করে ফেলবেন অথবা ব্রাশে করে থিনার দিয়ে পরিস্কার পরিস্কার করে নিবেন।

থিনার  বিভিন্ন হার্ডওয়্যার অথবা নিউমার্কেটে এ পাবেন। একটা কিনে নিলে আপনার অনেক দিন চলবে আর অনেক কাজে লাগবে।

৩। ভালোভাবে পরিস্কার করার পর ভালো করে দেখবে যে মোবাইলের মাদারবোর্ড এর সাথে কিপ্যাড আঠা দিয়ে লাগনো আছে। তখুন ব্যাটারীর সাথে মাদারবোর্ড চেপে ধরে মোবাইল অন করে দেখতে হবে যে কোন বোর্ডটি কাজ করছে না।

কিপ্যাড সমস্যার কিছু কারণ ও সমাধান সমূহ:

১। কি প্যাডের নিচে ময়লা জমা হয়ে থাকে তখুন কিপ্যাডে চাপ দিলে এর স্টিল মাদার বোর্ডের সাথে সংর্স্পস হয়না। তখুন হালকা করে আপনি কিপ্যাড টি তুলবেন দেখবেন আঠা দিয়ে লাগনো আছে। সাথে ছোট ছোট স্টিল বাটন আছে তার নিচের ময়লা গুলো পেট্রোল অথবা থিনার দিয়ে ভালোভাবে স্ক্রুদিয়ে ঘষে ঘষে তুলবন। তবে খুব সাবধানতার সাথে করবেন যে অন্য পাটস্ গুলো খুলে না যায়। তার পর আবার কিপ্যাডটি লাগিয়ে দিবেন আঠা না থাকলে পাতলা কসটেপ দিয়ে আটকে দিবেন। আঠা দেওয়ার দরকার নেই। দিয়ে অন করে দেখবেন। ঠিক ভাবে করলে দেখবে  কাজ করছে। তারপর ঠিকঠাক ভাবে সেট করে দিবেন।

২। কি প্যাডের যদি রিবন কানেকশন ছিড়ে যায়। বা লুজ হয়ে যায় তাহলেও কি প্যাড কাজ করবে না। (রিবন হলো পতলা প্লাস্টিকের মধ্যে চিকন চিকন অনেক তার) এটার দিকেও ভালো ভাবে নজর দিতে হবে দেখতে হবে যে কোন সমস্যা আছে কি না। দরকার হলে তা পরিবর্তন বা নতুন ভাবে আয়রন দিয়ে ঝালাই করতে হবে।

৩। অথবা আইসি থেকে সমস্যা হলে কিপ্যাড সমস্যা হয় যেটা ঠিক হবার সম্ভবনা খুব কম থাকে।

এই চারটা টুলস্ নিয়ে কাজটি করতে শুরু করুন দরকার হলে নষ্ট মোবাইলে আগে প্যাকটিস করুন তার পর করুন দেখবেন খুব সহজে পারছেন।

আপনি যদি মনে করেন যে আমার ভালো মোবাইলটি যদি নষ্ট হয়ে যায় তাহলে আপনি আগে খারাপ মোবাইলের উপর প্যাকটিস করে নিন যদি ঠিক ঠাক ভাবে করতে পারেন তার পর আপনার মোবাইল ঠিক করেন ।

আর আমি মোবাইলের সব কিছুর সমস্যা ও সমাধান ধারাবাহিক ভাবে লিখা লিখি করবো। আপনি যদি মনে করেন সার্ভিসিং শিখেবেন তাহলে আমার সাথে থাকুন আপনাকে কোন ট্রেনিং সেন্টারে ভর্তি হতে হবে না নিজে শিখতে পারেন।

পানিতে মোবাইল পড়লে কি করতে হবে জানতে হলে এখানে ক্লিক করুন

আরো কিছু জানার থাকলে আমাকে কমেন্ট বক্সে আপনার ইমেল এবং নাম দিয়ে কমেন্ট করুন।

Leave a Reply

error: Content is protected !!