নতুন প্রকাশিত
Home / Mobile Tips / মোবাইলের হেডফোন সমস্যা | হেডফোন একটিভ হয়ে থাকার কারণ
Mobile head phone socket problems

মোবাইলের হেডফোন সমস্যা | হেডফোন একটিভ হয়ে থাকার কারণ

প্রতিটা মোবাইলে হেডফোন সকেট থাকে। যার মাধ্যমে আমরা হেডফোন লাগিয়ে কথা বলতে ও শুনতে, মিউজিক শুনতে, রেডিওতে কথা, গান শুনতে পারি। এজন্য মোবাইলের হেডফোন সকেটের সমস্যা হলে মোবাইল নিয়ে আমাদের কিছূ সমস্যায় ভূগতে হয়।

সমস্যাটা কোথায় আপনাদের জানা থাকলে এসব ছোট খাটো সমস্যার সমাধান নিজেই করে অনেক ঝামেলা থেকে মুক্ত হতে পারবেন। তাহলে চলুন আজ আমরা জেনে ফেলি মোবাইলের হেডফোন সকেটের কিছু সমস্যা এবং সমাধানের উপায়।

মোবাইলের হেডফোন সকেটের কিছু সমস্যা

হেডফোন সাপোর্ট করেনা: 

মোবাইলের হেডফোন দুইটা কারনেই সাপোর্ট করেনা।

যেগুলো হলো-

  • হেডফোন সকেটের সমস্যা হলে।
  • হেডফোনের সমস্যা হলে।

মোবাইলের হেডফোন সাপোর্ট না করলে সেক্ষেত্রে অন্য একটি হেডফোন লাগিয়ে দেখতে হবে তাহলে সমস্যাটা কিসে হয়েছে তা সহজেই বোঝা যাবে।

হেডফোন একটিভ হয়ে থাকার কারণ :

হেডফোন আইকন সবসময় একটিভ দেখায়:

হেডফোন আইকন সবসময় একটিভ হয়ে থাকে এমন সমস্যায় হয়ত অনেকই পড়েছেন। অর্থাৎ আপনি মোবাইলে হেডফোন লাগান নি কিন্তু ডিসপ্লের কর্নারে হেডফোন আইকন একটিভ দেখাচ্ছে। বেশি ভাগ ক্ষেত্রে এমন সমস্যা দেখায় হেডফোন সকেট শর্ট হয়ে গেলে।

মোবাইলের হেডফোন সকেট অনেক পুরোনো হয়ে গেলে অথবা হেডফোনের জ্যাকে পিনের কারণে চাপ লেগে পোর্ট পিন আটকে গিয়ে শর্ট হলে সবসময় হেডফোন একটিভ দেখায়।

এমন সমস্যা হলে আপনার মোবাইলে কোন রিংটন বাজঁবেনা। আপনার মোবাইলের কোন সাউন্ড পাবেন না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে হেডফোন সকেট শর্ট হলে এমন সমস্যা হয়।

হেডফোন একটিভ সমস্যার সমাধান:

আপনার মোবাইলে যদি হেডফোন একটিভ সমস্যা হয় তাহলে আপনি প্রথমত যা করবেন তাহলো:

হেডফোনের জ্যাকটি কয়েক বার চাপ দিয়ে সকেটে প্রবেশ করাবেন আর বের করবেন। তারপরেও যদি না হয় তাহলে আপনি মোবাইলটি সাবধানতার সাথে খুলে ফেলুন।

তারপর চিত্র অনুযায়ী সকেটটি ভালো ভাবে দেখুন। ভালোভাবে দেখুন যে সকেটের কোন পিন বেকে বা ভাঁজ হয়ে অন্যটির সাথে বা বডির সাথে লেগে গিয়েছে কি-না।

যদি দেখেন কোন পিন শর্ট আছে তাহলে তা স্ক্রু ড্রাইভার দিয়ে হালকা করে ছুটিয়ে বা সোজা করে দিন। তাহলে হেডফোন আইকন ডি-একটিভ হয়ে যাবে।

আর যদি আপনি বুঝতে না পারেন কি হয়েছে, তাহলে আপনি একটি আয়রণ দিয়ে হেডফোন সকেটটির ঝালাই পয়েন্ট গুলো সাবধানতার সাথে ঝালাই তুলে আলাদা করে দিন। তাহলে হেডফোন আইকন ডি-একটিভ হয়ে যাবে।

আর আপনার যদি হটগান মেশিন থাকে তাহলে মোবাইলের মাদারবোর্ডের অপর সাইডে হিট দিয়ে- যেখানে হেডফোন সকেট লাগানো আছে তার আপর সাইটে, সেখানে যদি মাদারবোর্ডর আশে পাশে অন্য পার্টেস্ না থাকে তাহলে হিট দিয়ে তুলতে পারবেন।

বিশেষ কিছু সাবধানতা টিপস্ :

মানে রাখবেন অন্য পার্টিস্ যেন হিট লেগে উঠে না যায়। অথবা হেডফোনের সকেটে হিট দিয়ে পুড়িয়ে তুলে ফেলতে পারেন। এক্ষেত্রে মনে রাখবেন হিট যেন হেডফোনের সকেটে পাড়ে।

আরো মনে রাখবেন আমরা বেশির ভাগ সময় কোন পার্টস্ পরিবর্তন করতে পুরাতন পার্টস্ টি নষ্ট করে ফেলি কারণ নতুন যে পার্টটা লাগাবো সেটা যেন ঠিক ভাবে লাগানো পারি। কারণ পুরানো পার্টস্ টা বাঁচাতে গিয়ে মাদাবোর্ড এর যেন কোন সমস্যা না হয়।

অনেক সময় আমরা কি করি পুরানো পার্টস্ টা খুলতে গিয়ে মাদাবোর্ড বোর্ডের ১২টা বাজিয়ে দেই এমন যেন না হয় সেই দিকে খেয়াল রাখতে হবে। আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন।

হেডফোন সাপোর্ট করে কিন্তু কথা শোনার সময় এক স্পিকারের কথা শোনা যায় অপর স্পিকারে শোনা যায় না। এমন সমস্যা হওয়ার কিছু কারণ রয়েছে যেগুলো হলো:

  • হেডফোনের জ্যাকের গোড়ার কোন তার কেটে গেলে।
  • হেডফোনের কোন স্পিকার কেটে গেলে।
  • হেডফোনের রিসিভ বাটনের কাছে কোন তার ছুটে গেলে।
  • হেডফোনের সকেটের সাথে জ্যাকের সঠিক কানেকশন নাহলে।

আপনি যদি এসমস্যা গুলো উপরের নিয়মে ধারাবাহিক ভাবে ঠিক করতে পারেন তাহলে সহজেই আপনার মোবাইলের উক্ত সমস্যা সেরে যাবে। হেডফোন কিভাবে ঠিক করা যায় আলোচনা করবো। আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন।

আপনাদের যদি আরো কোন তথ্য জানার থাকে তাহলে আমাকে কমেন্ট করতে ভূলবেননা। মোবাইল সার্ভিসিং শিখতে হলে নিয়মিত আমার সাথে থাকুন। আমি মোবাইলের প্রতিটা বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

About admin

রিপেয়ারিং নিয়ে আপনার পছন্দের বিষয় কি? কোন বিষয়ে আপনি আর্টিকেল চান? কনটেক্ট পেইজে আপনার পছন্দের বিষয় লিখে সেন্ড করুন, আর সার্ভিসিং জনিত সমস্যা থাকলে গ্ররুপে জয়েন্ট করে প্রশ্ন করুন।

Check Also

সিম্ফনি কাস্টমার কেয়ার

সকল সিম্ফনি কাস্টমার কেয়ার এবং সার্ভিসিং সেন্টারের ঠিকানা

সিম্ফনি কাস্টমার কেয়ার হলো মোবাইল কেনারপর যেকোন সমস্যা হলে ফ্রি সার্ভিস নিতে প্রয়োজন হয় তখন …

14 comments

  1. amar headphoner jack mobile theke bar bar ber hoye jay so ki korte pari?

  2. Mobile service

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

+ 60 = 66

error: Content is protected !!