ল্যাপটপ গরম ওভারহিটিং

ল্যাপটপ গরম ওভারহিটিং হওয়ার কারণ ও তার সমাধান

আজ আমরা জানবো ল্যাপটপ গরম বা ওভারহিটিং হওয়ার কারণ ও তার সমাধান। কারণ এমন একটা সমস্যায় সকল ল্যাপটপ ব্যবহার কারীকে কোন না কোন সময় পড়তে হয় এবং ল্যাপটপ অতিরিক্ত গরম হওয়ার কারণে কাজ করতে গিয়ে বিভিন্ন ধরণের জটিল সমস্যায় পড়তে হয়। যেমন- ল্যাপটপ রিস্টার্ট নেয়, হ্যাংক করে, কিছুক্ষণ চলার পর বন্ধ হয়ে যাওয়ার মত বিভিন্ন জটিল সমস্যা হতে থাকে। তাই সংক্ষেপে ল্যাপটপ গরম বা ওভারহিটিং হওয়ার কারণ ও সমাধান জেনেনিন আশা করছি অনেক কাজে লাগবে।

ল্যাপটপ ওভারহিটিং কি :

নির্দিষ্ট তাপমাত্রার চেয়ে অতিরিক্ত মাত্রায় ল্যাপটপ গরম হয়ে যাওয়াকে ওভারহিটিং বলে। ওভারহিটিং বা অতিরিক্ত গরম হলে ল্যাপটপ হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে যায়। ল্যাপটপ ওভারহিটিং বা অতিরিক্ত গরম বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তার মধ্যে নিচে কয়েকটা কারণ ও তার সমাধান দেওয়া হয়েছে। যেগুলো জেনে আপনার ল্যাপটপের ওভারহিটিং সমস্যা সেরে নিতে পারেন অথবা সার্ভিসিং করে নিতে পারেন।

ল্যাপটপ হ্যাং হলে করণীয়

কম্পিউটার স্লো হলে করণীয়

ল্যাপটপ গরম হওয়ার কারণ কি :

আপনার ল্যাপটপ অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হওয়ার কারণ ও ল্যাপটপ ওভারহিটিং যে কারণে হয়ে থাকে তার মধ্যে নিম্নে উল্লেখ্য বিশেষ কতগুলো কারণ তুলে ধরা হলো :

  • ল্যাপটপের কুলিং ফ্যানের সমস্যা হলে ল্যাপটপ ওভারহিটিং হয়।
  • কুলিং ফ্যান জ্যাম হয়ে স্পিড কমে গেলে ল্যাপটপ গরম হয় ।
  • উইন্ডোজ সিস্টেমের কোন ফাইল ক্রাপ্ট হলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • সিস্টেমে ভারি সফ্টওয়্যার ব্যবহার করলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • হাই রেজুলেশন গ্রাফিক্স, প্রোগ্রাম, গেম অন করলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • ল্যাপটপ এর পাওয়ার সাপ্লাই বা সার্কিট শর্ট হলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • ল্যাপটপের ব্যাটারীর অ্যাম্পিয়ার কমে গেলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • ডিসি সাপ্লাইয়ে ব্যাটারীতে কোন সমস্যা হলে ল্যাপটপ গরম হয়।
  • ল্যাপটপের মাদারবোর্ড জনিত সমস্যা হলে ল্যাপটপ ওভারহিটিং হয়।

ল্যাপটপ গরম হলে করণীয় বিষয় :

স্বাভাবিক অবস্থায় ল্যাপটপ কিছুটা গরম হয় যা কোন সমস্যা নয় তবে অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হলে এটা সমস্যা বলে ধরে নিতে হবে। আপনার ল্যাপটপ অতিরিক্ত মাত্রায় গরম হলে কি করবেন? ল্যাপটপ বেশি গরম হলে করণীয় বিষয় গুলো নিচে দেওয়া হয়েছে, যেগুলো খুঁজে সমস্যা বের করে সমাধান করতে হবে, তাহলে ওভারহিটিং সমস্যা থেকে আপনার ল্যাপটপকে রক্ষা করতে পারেন। উক্ত সমস্যা গুলো পয়েন্ট আকারে দেওয়া হলো:

কুলিং সিস্টেম ঠিক মত কাজ করছে কি-না :

যদি দেখেন আপনার ল্যাপটপের কুলিং সিস্টেম ঠিকমত কাজ করছে না, তাহলে সেটা নিজে অথবা সার্ভিসিং সেন্টারে নিয়ে ঠিক করে নিয়ে আসতে হবে। যেমন- ফ্যানের সমস্যা থাকতে পারে বা ময়লা জমে থাকতে পারে, স্পিড কমে গিয়ে থাকতে পারে, এজন্য কুলিং ঠিকমত হচ্ছে না, ওভারহিটিং হচ্ছে এবং রিস্টার্ট নিচ্ছে।

ল্যাপটপের চেম্পারেচার ঠিক আছে কি-না :

আপনার ল্যাপটপ এর টেম্পারেচার দেখার জন্য বায়োস মেনুতে গিয়ে- টেম্পারেচার অপশন থেকে দেখতে পারেন। অথবা অনলাইনে টেম্পারেচার দেখার বিভিন্ন সফ্টওয়্যার পাওয়া যায় যেগুলো দিয়েও তাপমাত্রা দেখতে পারেন। আপনাকে দেখেতে হবে আপনার ল্যাপটপের র্সবোচ্চ তাপমাত্রা কত এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কত সেটআপ করা আছে। যেটা প্রয়োজনে আপনি পরিবর্তন করতে পারেন, তবে ডিফল্ট যেটা সেটিং করা থাকে সেটা রাখা ভালো আমি মনে করি।

ল্যাপটপ কোন কারণে হ্যাংক করছে কি-না :

যেকোন কারণে ল্যাপটপ হ্যাং করলে, কোন ভারি প্রোগ্রাম রান করলে, বা ল্যাপটপ চলতে চলতে অটোমেটি হ্যাং করলে, বুঝতে হবে আপনার ল্যাপটপের সিস্টেমের সাথে সেই প্রোগ্রাম ম্যাচ করছে না। এজন্য আপনি প্রোপার্টিজ এবং টাস্ক ম্যানাজার থেকে আপনার অপারেটিং সিস্টেম এবং ল্যাপটপের কনফিগারেশন মিলিয়ে দেখতে পারেন।



ভারি সফ্টওয়ার অন করলে ল্যাপটপ হ্যাং করছে কি-না :

হাই গ্রাফিক্স বা গ্রাফিক্স রিলেটেড ভারি সফ্টওয়্যার, গেম, এডোবি সিরিজের সফ্টওয়্যার ব্যবহার করলে কম্পিউটারে বেশি গ্রাফিক্স থাকা প্রয়োজন। যদি প্রয়োজনের তুলনায় গ্রাফিক্স কম থাকে তাহলে বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে। তার মধ্যে কম্পিউটার হ্যাং এবং ওভারহিটিং সমস্যা অন্যতম। প্রয়োজনে আপনার ল্যাপটপের কনফিগারেশন চেক করুন।

উইন্ডোজ বেশি পুরাতন হলে নতুন ভাবে সেটআপ করা:

অনেক সময় দেখা যায় আমাদের উইন্ডোজ সিস্টেম অনেক দিনের পুরাতন, তাও আবার ক্রাক উইন্ডোজ। আমরা বেশির ভাগ সংখ্যক লোক ক্রাক উইন্ডোজ ব্যবহার করে থাকি। আসলে আপনি কি জানেন? জেনুইন উইন্ডোজ সিডির দাম কত? জেনুইন উইন্ডোজ সিডির দাম প্রায় ১০-১২ হাজার টাকা। কিন্তু আমরা ব্যবহার করি ৪০ টাকা দামের উইন্ডোজ সিডি ফলে ল্যাপটপ এবং কম্পিউটার সিস্টেম নিয়ে আমাদের বিভিন্ন সমস্যায় থাকতে হয়।

ল্যাপটপ গরম হওয়া থেকে বাঁচার উপায় :

আপনার প্রতিদিনের ব্যবহৃত ল্যাপটপটিকি ওভারহিটিং বা অতিরিক্ত গরম হওয়া থেকে যেভাবে বাঁচাতে পারেন তা নিচে এবং উপরে দেওয়া হয়েছে। তবে তাই বলে মনে করবেন না যে স্বাভাবিক অবস্থায় ল্যাপটপ একে বারে ঠান্ডা থাকে, মনে রাখবেন ইলেকট্রনিক্স প্রত্যেকটা ডিভাইসই গরম হয়ে থাকে। আর তা কতটা গরম হবে সেটাও উল্লেখ থাকে ব্যবহারে। নিচের কয়েকটা কারণ মেনে ল্যাপটপ ব্যবহার করলে ওভারহিটিং সমস্যা কম হবে।

  • নিয়মিত কুলিং সিস্টেমের ফ্যান ঠিক আছে কি-না দেখতে হবে।
  • কুলিং ফ্যানের স্পিড, বাতাস ঠিক, ময়লা জমেছে কি-না দেখতে হবে।
  • বিছানায় কাপড়ের উপর ল্যাপটপ ব্যবহার করা যাবে না করলে ওভারহিটিং হবে।
  • বাতাস চলাচল করতে পারে এমন স্থানে ল্যাপটপ রাখতে হবে।
  • ভারি কোন প্রোগ্রাম ব্যবহার করার সময় একাধিক প্রোগ্রাম ব্যবহার করা যাবে না।
  • ল্যাপটপের উইন্ডোজ সিস্টেম সব সময় ফ্রেশ এবং হালকা রাখতে হবে।
  • ডেস্কটপে বড় ফাইল রাখা যাবে না নিয়মিত রিসাইকেলবিন ক্লিয়ার করতে হবে।
  • প্রয়োজনে ল্যাপটপের পাওয়ার সেভার মোড অন করে ব্যবহার করতে হবে।

ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখার উপায় :

কিভবে আপনার ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখবেন তার কয়েকটা শর্ট টিপস্ আপনাদের দিয়ে রাখি। যেগুলোর মাধ্যমে ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখতে পারেন এবং ল্যাপটপের কুলিং সিস্টেম ঠিক রাখতে পারেন। নিম্নে কয়েকটা পয়েন্ট দেওয়া হলো যেগুলো করে অপনার ল্যাপটপ ওভারহিটিং বা অতিরিক্ত গরম হওয়া থেকে রক্ষা করে ঠান্ডা রাখতে পারেন।

  • অতিরিক্ত গরম স্থানে ল্যাপটপ ব্যবহার না করা।
  • কুলিং সিস্টেম ঠিক রাখা ও টেম্পারেচার দেখা।
  • ল্যাপটপের ফ্যানের বাতাসে কোন বাধা না দেওয়া।
  • এক্সট্রানাল কুলিং ব্যাক কাভার ব্যবহার করা।
  • অনেক বেশি প্রোগ্রাম এক সাথে চালু না করা।
  • সিস্টেম আপডেট থাকলে অটো আপডেট বন্ধ করা।
  • অপ্রয়োজনে একসাথে একাধিক প্রোগ্রাম চালু না করা।

ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখার সফটওয়্যার :

ল্যাপটপকে ঠান্ডা রাখার জন্য নির্ভর করবে আপনার ল্যাপটপের কুলিং সিস্টেম আর অপারেটিং উন্ডোজ সিস্টেম। যে ল্যাপটপের কুলিং সিস্টেম ও আপারেটিং সিস্টেম যত ভালো সেই ল্যাপটপ ওভারহিটিং সমস্যা কম হবে। এজন্য কুলিং ফ্যান গুলো ঠিকমত কাজ করছে কি-না খেয়াল রাখুন। আর সার্ভিসিং করলে প্রয়োজনীয় স্থানে কুলিং পেস্ত ব্যবহার করুন। ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখার সফ্টওয়্যার বলতে তেমন কোন সফটওয়্যার নেই তবে অপারেটিং সিস্টেম এবং পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট করার জন্য অনলাইনে বিভিন্ন সফটওয়্যার রয়েছে, যেগুলো ব্যবহার করে তেমন কোন কাজ হয় না। এজন্য এগুলো সম্পর্কে আলোচনা করলাম না যদি আপনাদের দরকার হয় তাহলে নিচে কমেন্ট করুন। কমেন্টের ভিত্তিতে পরবর্তীতে আর্টিকেল পাবলিশ করা হবে।

ল্যাপটপ সার্ভিসিং করার নিয়ম

ল্যাপটপের সমস্যা ও সমাধান

Leave a Reply

DMCA.com Protection Status