ল্যাপটপ চার্জ হচ্ছে না

ল্যাপটপ চার্জ হচ্ছে না? ব্যাটারী চার্জার এডপ্টার সমস্যা মেরামত

আজ আমরা জানবো ল্যাপটপের ব্যাটারী চার্জার এডপ্টার ও ল্যাপটপ চার্জ জনিত সকল সমস্যার পূর্ণ একটা সমাধান। আর যাদের প্রতিটা বিষয় জানার প্রয়োজন নেই তারা সূচীপত্র দেখে আপনার কাংখিত বিষয়টি জেনে নিতে পারেন। আর যদি পুরো বিষয় জানার প্রয়োজন হয় তাহলে মনোযোগের সাথে পুরো আর্টিকেলটি পড়ুন। আশা করছি এখান থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবেন ও নতুন কিছু জানতে পারবেন। এছাড়াও একটা চার্জিং সমস্যার গাইড অনুসরণ সার্কিট দিয়েছি যেটা দেখে আপনার ল্যাপটপ এর চার্জিং সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

ল্যাপটপের ব্যাটারি প্লাগ ইন দেখাচ্ছে কিন্তু চার্জ হচ্ছে না :

চার্জিং সমস্যা কিভাবে সমাধান করবেন তার একটা সার্কিট ডায়াগ্রাম আপনাদের সামনে নিয়ে এসেছি। যেটা দেখে ল্যাপটপের চার্জ এবং চার্জিং সমস্যা বা ল্যাপটপের ব্যাটারি প্লাগ ইন দেখাচ্ছে কিন্তু চার্জ হচ্ছে না এমন সব জটিল সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। নিচের ডায়াগ্রামটি ভালো ভাবে দেখলে ল্যাপটপের চার্জিং জনিত সমস্যা হলে কিভাবে কাজ শুরু করবেন তার জন্য ল্যাপটপের মাদাবোর্ড এর চার্জিং সেকশন থেকে আলাদা করা চার্জিং অংশ বা বিভাগ এর চার্জিং প্রক্রিয়া দেওয়া হয়েছে।

ল্যাপটপ চার্জ হচ্ছে না হলে সার্কিট ডায়াগ্রাম দেখে ঠিক করার নিয়ম ছবি

চিত্র: ল্যাপটপের চার্জিং ডায়াগ্রাম সিস্টেম

আপনার ল্যাপটপে যদি চার্জ ইরর বা চার্জ না হওয়া সমস্যা হয় তাহলে সার্কিট ডায়াগ্রাম দেখে প্রথমে চার্জিং জ্যাক, তারপর কয়েল, তারপর এমএম, তারপর এসএম, তারপর রেজিস্টেন্স, তারপর চার্জিং আইসি, এভাবে প্রতিটা পার্টস পরিক্ষার করতে হবে। তাহলে সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন।

ল্যাপটপে চার্জ না হওয়ার কারণ :

প্রথমে আমরা জানবো ল্যাপটপে চার্জ না হওয়ার কারণ গুলো সম্পর্কে। তারপর ধিরে ধিরে প্রতিটা কারণের সমাধান জানবো। তাহলে চার্জিং সমস্যা জনিত বিষয় গুলো বুঝতে অনেক সহজ হয়ে যাবে ফলে তখন আপনারা নিজেই এর সমাধান করতে পারবেন। আজকের আর্টিকেলের ধরণ শিরোনাম গুলো হবে প্রশ্ন এবং বর্ণনা গুলো তার সমাধান হিসাবে দেওয়া হয়েছে। সুতরাং মনোযোগের সাথে প্রতিটা পয়েন্ট পড়লে আপনার সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন। আর এগুলো সম্পর্কে আলাদা আলাদা বিস্তারিত ভাবে আর্টিকেল থাকবে।

ল্যাপ্টপের ব্যাটারির চার্জ ফুল হচ্ছে না:

আপনার ল্যাপ্টপের ব্যাটারির চার্জ ফুল হচ্ছে না? ৭০-৮০% হওয়ার পর not charging লেখা শো হচ্ছে ? ফুল চার্জ হচ্ছে না ? এমন সমস্যা কয়েকটা কারণে হতে পারে। যেগুলোর মধ্যে কয়েকটা সমস্যার সমাধান আপনি নিজেই করতে পারেন। তাহলে চলুন সমস্যা গুলো কি কি হতে পারে তা জেনেনি এবং ল্যাপটপের চার্জিং বা চার্জ জনিত সমস্যা সকল সমাধান গুলো সম্পর্কে জেনেনিন যেগুলো নিচে পয়েন্ট আকারে দেওয়া হয়েছে।

ল্যাপটপ চার্জ হচ্ছে না :

আপনার ল্যাপটপে চার্জ না হলে আপনাকে প্রথমে আপনার এডাপ্টার চেক করতে হবে কারণ অনেক সময় দেখতে যায় ল্যাপটপের এডাপ্টার খারাপ হয়ে থাকে। এডাপ্টার এর আউটপুট ভোল্টেজ ঠিক থাকে না। এডাপ্টার এর আউটপুট জ্যাক খারাপ হতে পারে, ল্যাপটপের চার্জ ইনপুট পিন খারাপ বা লুজ থাকতে পারে। অনেক সময় আপারেটিং সিস্টেম সেটিং থেকে ডিভাইস ম্যানেজারে চার্জিং ড্রাইভার মিসিং থাকতে পারে সেজন্য ডিভাইস ম্যানেজার একবার দেখে নিন। মিসিং থাকলে নতুন ভাবে চার্জিং ড্রাইভার সেটআপ করুন।

ল্যাপটপের ব্যাটারি সমস্যা :

বেশির ভাগ সময় দেখা যায় ল্যাপটপের ব্যাটারী সমস্যার কারণে ল্যাপটপ ব্যাকআপ কমে যায়, চার্জ হয় না, ল্যাপটপ হ্যাংক হয়, বার বার রিস্টার্ট নেয়, ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। বাজারে ল্যাপটপের ব্যাটারী মেরামত করার মত তেমন সার্ভিস সেন্টার নাই, সাধারণ সমস্যা হলে সার্ভিসিং করে মেরামত করা যায়। তবে যদি ব্যাটারী সেল খারাপ হয়ে যায় তাহলে নতুন ব্যাটারী কিনতে হবে। যার বর্তমান মূল ১৫০০-২৫০০/- টাকার মধ্যে হয়ে যাবে। তবে ব্যাটারীর কোয়ালিট এবং ব্রান্ডের উপর দামের কম বেশি হতে পারে।

ল্যাপটপের চার্জার এডপ্টার সমস্যা :

আমরা ল্যাপটপে চার্জ দেওয়ার জন্য এবং এসি কারেন্ট এ ল্যাপটপ চলানোর জন্য যে ডিভাইস ব্যবহার করে থাকি তাকে চার্জার এডপ্টার বলা হয়। এটার কাজ হলো ভোল্টেজ কমিয়ে ল্যাপটপ চলার উপযোগী করে পাওয়ার সাপ্লাই একইরেটে ডিসি ভোল্টেজ আউটপুট দেওয়া যা থেকে লিথিয়াম অয়ন ব্যাটারী চার্জ সংগ্রহ করে সংরক্ষণ করতে পারে এবং ল্যাপটপ চলাতে পারে। মূলত এটার সমস্যা হলে মেরামত করা যায় তবে মেরামত করা গেলেও বেশি দিন টিকে না। এজন্য হলো নষ্ট হলে বা চার্জে কোন সমস্যা হলে পরিবর্তন করে নেওয়াই ভালো।

ল্যাপটপের চার্জিং কানেক্টর সমস্যা :

চার্জিং সমস্যার অনেক কারণ গুলোর মধ্যে ল্যাপটপের কানেক্টর সমস্যা থাকার কারণে ল্যাপটপে চার্জ হয় না। চার্জিং ইরর দেখায় লো ব্যাটারী দেখায়, নো চার্জ, ব্যাটারী ফুল ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যা হয়। ল্যাপটপের চার্জিং কানেক্টর সমস্যা হলে কানেক্টর পরিবর্তন করতে হবে। বর্তমানে বেশির ভাগ মাদারবোর্ডর সাথে সোল্ডারিং করা কনেক্টর থাকে না এটা একটা আলাদা রিবনওয়্যার দিয়ে ল্যাপটপের বডির সাথে আটকানো থাকে। যেটা খুব সহজেই পরিবর্তন করে নিতে পারেন।

চার্জে দিয়ে ল্যাপটপ ব্যবহার :

ল্যাপটপ চার্জে দিয়ে ব্যবহার করা যায় তবে। মনে রাখুন আপনার ল্যাপটপ চার্জে দিয়ে ব্যবহার করবেন তো ব্যাটারীর কি দরকার? এজন্য আপনার ল্যাপটপের আয়ু বেশি দিন বাড়াতে চাইলে চার্জ অবস্থায় ল্যাপটপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। ব্যাটারী একদম ফুল চার্জ দিয়ে কাজ করুন। যদি ব্যাটারী নষ্ট থাকে ব্যাটারীতে লোড নিতে না পারে সেক্ষেত্রে চার্জে দিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

ল্যাপটপের ব্যাটারি চার্জের নিয়ম :

ল্যাপটপ এর ব্যাটারী চার্জে দেওয়ার তেমন কোন নিয়ম নেই বললেই চলে। তবে সব সময় ফুল চার্জ দিয়ে ল্যাপটপ ব্যবহার শুরু করতে হবে। আর ফুল চার্জ শেষ করে ল্যাপটপ চার্জে দিতে হবে। কোন সময় প্রয়োজন ছাড়া হাফ চার্জ দিয়ে ব্যবহার শুরু করা যাবে না। আবার হাফ চার্জ থাকা অবস্থায় চার্জ দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। যদি এই নিয়মের বাইরে চার্জ দেওয়া- নেওয়ার কাজটা করেন তাহলে কোন সমস্যা হবে না তবে হয়ত খুব তাড়া তাড়ি ব্যাটারী ড্যামেজ হওয়ার সম্ভাবনা রয়ে যাবে।

নতুন ল্যাপটপ কতক্ষণ চার্জ দিতে হয় :

ল্যাপটপ যদি নতুন হয় তাহলে উপরের নিয়ম মেনে চার্জ দিতে হবে। নতুন ল্যাপটপ ফুল চার্জ দিয়ে সব সময় ব্যবহার করতে হবে। সেটার চার্জ হতে কতক্ষণ লাগে আপনাকে আগে দেখে নিতে হবে। মোটকথা ফুল চার্জ দেওয়া সময়টা মেইন না চার্জ টা মেইন। তাই ফুল চার্জ দিবেন আর সব চার্জ শেষ করে আবার চার্জ দিয়ে ব্যবহার করবেন এটাই নিয়ম।

নতুন ল্যাপটপের দাম :

বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের বা কোম্পানির ল্যাপটপ পাওয়া যায়। যেমন- HP (এইচপি), ASUS (আসুস), Compaq (কমপ্যাক), Sony Vaio (সনি ভিউ), DELL (ডেল), Lenovo (লিনোভো), Acer (এ্যাসার), Apple (অ্যাপেল), Microsoft (মাইক্রোসফ্ট), Samsung (স্যামস্যাং), Wolton (ওয়ালটন), LG (এলজি), Benq (বেনকিউ) ল্যাপটপ সহ আরো বিভিন্ন ব্রান্ডের কনফিগারেশন ভেদে বিভিন্ন দামে ল্যাপটপ পাওয়া যায়। যার মধ্যে কম থেকে ৳ ১২০০১ – ৳১৫০০০. ৳১৫০০১ – ৳২০০০০. ৳২০০০০১- ৳ ৫০০০০০ এর উপরে বিভিন্ন ল্যাপটপ মার্কেটে পাবেন। আপনার পছন্দের দাম অনুসারে কিতে নিতে পারেন।

ল্যাপটপ এডপ্টার চার্জারের দাম :

বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের ল্যাপটপের এডপ্টার পাওয়া যায়। যেমন- HP (এইচপি), ASUS (আসুস), Compaq (কমপ্যাক), Sony Vaio (সনি ভিউ), DELL (ডেল), Lenovo (লিনোভো), Acer (এ্যাসার), Apple (অ্যাপেল), Microsoft (মাইক্রোসফ্ট), Samsung (স্যামস্যাং), Wolton (ওয়ালটন), LG (এলজি), Benq (বেনকিউ) ল্যাপটপ এডপ্টার এর কোয়ালিটি ভেদে বিভিন্ন দামের পাওয়া যায়। এর মধ্যে ৫৫০ থোকে শরু করে ৩৫০০ টাকা পর্যন্ত বিভিন্ন দামের ল্যাপটপ এডপ্টার পাওয়া যায়।

ল্যাপটপের ব্যাটারির দাম কত :

বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের ল্যাপটপের ব্যাটারির পাওয়া যায় যেমন- HP (এইচপি), ASUS (আসুস), Compaq (কমপ্যাক), Sony Vaio (সনি ভিউ), DELL (ডেল), Lenovo (লিনোভো), Acer (এ্যাসার), Apple (অ্যাপেল), Microsoft (মাইক্রোসফ্ট), Samsung (স্যামস্যাং), Wolton (ওয়ালটন), LG (এলজি), Benq (বেনকিউ) ল্যাপটপের ব্যাটারির এর কোয়ালিটি ,মডেল, ব্রান্ড ভেদে বিভিন্ন দামে পাওয়া যায়। যেমন- SN03XL ST03XL 430 ELITEBOOK 820 G3 725 G3 SN03044XL HSTNN-DB6V 800514-001 800232-241 ল্যাপটপ ব্যাটারি. ৳ ১২০০- ৳৩,২০০  পর্যন্ত কোম্পানি এবং কোয়ালিটি ভেদে দাম।

ল্যাপটপ হ্যাং ঠিক করার নিয়ম জানতে এখানে ক্লিক করুন

10 Comments

  1. Saddam Hossain January 13, 2020
    • admin January 13, 2020
  2. Milon May 17, 2020
  3. সাফায়েত আলী June 15, 2020
    • admin June 15, 2020
  4. কাফি June 27, 2020
  5. Nayan Pal July 19, 2020
    • admin July 20, 2020

Leave a Reply

DMCA.com Protection Status
error: Content is protected !!