কারেন্ট কি | এসি ও ডিসি কারেন্ট এর পার্থক্য বিস্তারিত

কারেন্ট কি: বর্তমানে সবচেয়ে চাহিদা মূলক জ্বালানি হিসাবে মানুষ কারেন্ট ব্যবহার করছে। কিন্তু কারেন্ট সাধারণ জ্বালানির মত নয়, ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্রে মানুষের নিত্য দিনের ব্যবহারের জন্য কারেন্টের চাহিদা যেভাবে বেড়েই চলেছে তা অকল্পনীয়। কারেন্টের মাধ্যমে আমরা টিভি, ফ্রিজ, এসি, কম্পিউটার, ফ্যান, হিটার, মটর, চার্জার ইত্যাদি চালিয়ে থাকি তাই বলা যায় নিত্য দিনের বিভিন্ন কাজে কারেন্টের ব্যবহার গুরুত্বপূর্ণ।

বর্তমানে কারেন্টের চাহিদা দ্বিগুন হারে বেড়ে চলেছে কারণ, কারেন্ট ছাড়া কোন ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্র চালানো সম্ভব নয়। এজন্য কারেন্টকে বলতে পারি আমাদের ইলেক্ট্রনিক্সে নিত্য দিনের জ্বালানি। কারেন্ট বলতে আমরা যা বুঝি তা হলো ঘরের বাল্ব, ফ্যান, এসি, ফ্রিজ, টিভি ব্যবহারের জন্য বা কারখানায় বিভিন্ন যন্ত্রকে পরিচালনা করার জন্য ব্যবহৃত শক্তি তাই আজ জানবো কারেন্ট কি তা নিয়ে বিস্তারিত।

কারেন্টের প্রকারভেদ:

কারেন্ট দুই ধরণের হয়ে থাকে যথা-

  • ১। এসি কারেন্ট (AC CURRENT)  
  • ২। ডিসি কারেন্ট (DC CURRENT)

এসি কারেন্ট (AC CURRENT):

AC কথাটির অর্থ Alternating Current বা পরিবর্তিত প্রবাহ। তাহলে নাম শুনে বোঝা যায় AC Current পরিবর্তনশীল কারেন্ট, সব সময় একই রেটিং বা মান দেয় না। যে কারেন্ট সব সময় একই গতিতে চলতে পারে না তাকে AC Current বলা যায়। AC Current এর প্রবাহ হয় ঢেউয়ের মত সোজা রেখার মধ্যে দিয়ে উপরে নিচে করে প্রবাহিত হয়। উপর নিচে বলতে কমবেশি আপ-ডাউন ভোল্ট প্রবাহিত হওয়া বোঝায় চিত্র: ১, আমরা সাধারণত ২২০ ভোল্ট এসি কারেন্ট বাড়ির জন্য ব্যবহার করে থাকি আর বিভিন্ন কারখানার জন্য উচ্চ ভোল্ট ব্যবহার করে থাকি। এসি কারেন্টকে  স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে ভোল্ট কমিয়ে ডায়োড দিয়ে ডিসি ভোল্টে রুপান্তরিত করে সাধারণ হোম ইলেক্ট্রনিক্সে ব্যবহার করা হয়।

চিত্র ১: এসি কারেন্ট (AC CURRENT) 

কারেন্ট কি Alternating Current flow jpg
Alternating Current flow

এসি কারেন্ট (AC CURRENT) এর ব্যবহার:

এসি কারেন্ট সরাসরি ইলেক্ট্রিক ডিভাইসে ব্যবহার করা হয়। যেমন- হিটার,  ট্রান্সমিটার, ফ্যান, বাল্ব, এসি, ফ্রিজ, ইত্যাদি।

এসি কারেন্ট (AC CURRENT) এর বৈশিষ্ট্য:

  • এসি কারেন্টের গতি সবসময় একই থাকেনা।
  • এসি কারেন্টের গতি প্রতিমিনিটে আপ-ডাউন করে।
  • এসি কারেন্ট পরিবর্তশীল কারেন্ট।
  • এসি কারেন্টে হাত দিলে শক্ করে।
  • এসি কারেন্ট সরাসরি কোন ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসে ব্যবহার করা যায়না।

ডিসি কারেন্ট (DC CURRENT):

DC কথাটির অর্থ Direct Current বা সমপ্রবাহ। ডিসি কারেন্টের বৈশিষ্ট হলো এর মান সব সময় একই রকম থাকে। কোন সময় এর মানের পরিবর্তন হয় না। তাই  ডায়োডের মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিক্সে ডিসি কারেন্ট ব্যবহার করা হয়। ডিসি কারেন্ট সাধারণত যে ভোল্টে ব্যবহার করা হয় তা হলো ৩ ভোল্ট হতে ২৪ ভোল্ট পর্যন্ত।

স্টেপ ডাউন ট্রান্সফরমার ব্যবহার করে ভোল্ট কমিয়ে ডায়োডের মাধ্যেমে ডিসি কারেন্টে রুপান্তরিত করে সাধারণ ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসে ব্যবহার করা হয়। আবার অনেক সময় স্টেপ আপ ট্রান্সফরমার ব্যবাহার করে বেশি ভোল্ট ব্যবহার করি। ট্রান্সফরমার কি জানতে এখানে ক্লিক করুন।

চিত্র ২: ডিসি কারেন্ট (DC CURRENT)

কারেন্ট কি Direct Current flow jpg
Direct Current flow

ডিসি কারেন্ট (DC CURRENT) এর ব্যবহার:

এসি কারেন্ট ট্রান্সমিটারের মাধ্যমে ডায়োড দিয়ে ডিসিতে পরিবর্তন করে আমাদের প্রতিদিনের ব্যবহৃত টিভি, কম্পিউটার, রেডিও, মোবাইল, বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসে বিভিন্ন ভাবে ব্যবহার হয়।

ডিসি কারেন্ট (DC CURRENT) এর বৈশিষ্ট্য:

  • ডিসি কারেন্টের গতি সব সময় একই থাকে।
  • ডিসি কারেন্টের গতি প্রতিমিনিটে একই থাকে।
  • ডিসি কারেন্টের গতি অপরিবর্তনী।
  • ডিসি কারেন্ট সরাসরি ইলেক্ট্রনিক্সে ব্যবহার করা যায়।
  • ডিসি কারেন্ট প্রবাহিত ধাতুতে হাত পড়লে শক্ করে না।

কারেন্ট বা বিদ্যুৎ নিয়ে যদি কিছু জানার থাকে তাহলে আমাকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। সম্ভাব হলে আমি আপনাদের উওর দেওয়ার চেষ্ট করব। আর নিয়মিত ইলেক্ট্রনিক্স বিভিন্ন সমস্যার সমাধান নিয়ে বিভিন্ন লিখা প্রকাশ করবো।

2 Comments

  1. Mahbubul Islam March 25, 2019
    • eMakerBD March 27, 2019

Leave a Reply

DMCA.com Protection Status
error: Content is protected !!